06 Feb 2020

Flagrant disregard for public interest

জনস্বার্থের প্রতি প্রতারণামূলক অবজ্ঞা

Should people suffer because of someone’s unlawful act, which has gone unnoticed by the authorities? The case in point is the high-handed attitude of a person who deems it perfectly permissible to withdraw and separate water from a common source, a flowing canal meant for the daily use of ordinary people living along the canal. The culprit in question is a hotel owner in Bandarban.

কর্তৃপক্ষের নজরে না আসা কারও বেআইনী কাজের কারণে জনগণকে কি দুর্ভোগ পোহাতে হবে? এক্ষেত্রে বিষয়টি হলো-একজন ব্যক্তি্র ক্ষমতা প্রদর্শনের মনোভাব, যে সাধারণ উৎস থেকে পানি তুলা এবং নিয়ে যাওয়াকে অনুমোদিত বলে মনে করে, যে উৎসের পানি খাল এর পাশে বসবাসকারী সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন ব্যবহারের জন্য ব্যবহৃত হবার কথা। উল্লেখ্য অপরাধী বান্দরবানের একটি হোটেল মালিক।

It is outrageous that the hotel owner would dig a 100-feet deep tube well to extract 12,000 litres of potable water from the canal for his hotel, depriving the nearly seven hundred people in the area. Even the protests of the locals could not make him desist from this illegal act. The local councillor, we understand, is afraid to warn him or report the matter to the police for redress, because this person is very close to the political class of the area and therefore deems himself above the law. This has been going on for a year.

এটি অত্যন্ত বিস্ময়কর যে, সেখানকার প্রায় সাত শতাধিক মানুষকে বঞ্চিত করে হোটেলটির মালিক তার হোটেলের জন্য খাল থেকে ১২,০০ লিটার বিশুদ্ধ পানি তোলার জন্য একটি ১০০ ফুট গভীর  নলকূপ খনন করেছিলেন। এমনকি স্থানীয়দের বিক্ষোভও তাকে এই অবৈধ কাজ থেকে বিরত রাখতে পারেনি। আমরা বুঝতে পেরেছি যে, স্থানীয় কাউন্সিলর তাকে সাবধান করার জন্য বা পুলিশকে এই সমস্যা সমাধানের জন্য রিপোর্ট করতে ভয় পাচ্ছে, কারণ এই ব্যক্তি এই অঞ্চলের রাজনৈতিক শ্রেণির খুব নিকটতম এবং তাই নিজেকে আইনের ঊর্ধ্বে গণ্য করছেন। এক বছর ধরে এটি চলছে।

Depriving the people of common resources is illegal, but when the resource involved is water, it is a criminal act. In the Chittagong Hill Tracts, water happens to be a rare commodity. Development work and the tourism boom in the region have wrought irreparable damage to its ecology. In particular, many of the life-sustaining streams have dried up because of such activities.

সকলের ব্যবহার্য সম্পদ থেকে জনগণকে বঞ্চিত করা অবৈধ, তবে সম্পদটি যখন পানি তখন এটি একটি অপরাধমূলক কাজ। পার্বত্য চট্টগ্রামে পানি একটি বিরল প্রয়োজনীয় জিনিস হিসাবে দেখা হয়। এই অঞ্চলে উন্নয়ন কাজ এবং পর্যটন বর্ধনের ফলে এর বাস্তুতন্ত্রের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। বিশেষত, এই জাতীয় ক্রিয়াকলাপের কারণে জীবন রক্ষাকারী অনেক পানির ধারা/নদী শুকিয়ে গেছে।

So not only is this hotel owner depriving the people of water, withdrawing water in this manner is also contributing to depleting water sources, risking the prospect of the canal drying up altogether. Is this what politicians, who claim to represent the people, do to the people? We demand that the local administration takes cognizance of the matter seriously. The hotel owner should be held accountable and the law must be applied regardless of his political clout.

তাই কেবল এই হোটেল মালিকই মানুষকে পানির হাত থেকে বঞ্চিত করছেন না, এই পদ্ধতিতে পানি সংগ্রহ করা জলের উৎস হ্রাস করার ক্ষেত্রে অবদান রাখছে, খাল গুলোর পুরোপুরি শুকিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলেছে। জনগণের প্রতিনিধিত্ব করার দাবিদার রাজনীতিবিদরা কি এটাই জনগণের প্রতি করেন? আমরা দাবি করছি যে, স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করবে। হোটেল মালিককে জবাবদিহি করতে হবে এবং আইনটি প্রয়োগ করতে হবে তার রাজনৈতিক দলকে বিবেচনায় না নিয়ে।


BCS PRELIMINARY & WRITTEN

Learn from scratch to become a first class officer.


BANK JOBS

A huge collection of Bank Job Questions to guide you through.


NTRCA

Easy and simple way to succeed.


GOVT. JOBS

StudyPress has solutions of ALL previous govt job tests.


MBA ADMISSION TEST

Worried about Math and English? Try Studypress


CURRENT NEWS

Every Important News updates for Job Preparation.


MISTAKE LIST

Something you will find nowhere else, but you need the most.


ALL PREVIOUS QUESTION & SOLUTIONS

The test was held yesterday? Solution is here!!


Login Now